Swagbucks: অনলাইন থেকে ইনকাম – বেস্ট ভিডিও-সার্ভে প্ল্যাটফর্ম

আসসালামু আলাইকুম,তো কেমন আছেন আপনারা?আশা করি অনেক বেশি ভালো আছেন।তো প্রত্যহের মতো আজকের নতুন ব্লগে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি।আশা করি ব্লগ টি শেষ পর্যন্ত পড়বেন।আজকের বিষয় Swag Bucks এ কিভাবে কাজ করবেন এবং জরিপ পূরণ করে অনলাইনে ইনকাম করবেন।তাহলে চলুন দেরী না করে শুরু করা যাক।

SwagBucks হলো বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বেস্ট জরিপ সাইট।সোয়াগবাগে বাংলাদেশ থেকে জরিপ পূরণ করে আয় করা যে সহজ তা কিন্তু নয়।অনেক বেশি স্ট্রাগল এর জন্য আপনাকে করতে হবে।মানে আপনাকে কয়েক মাস শুধু লগ ইন করে যেতে হবে।সবকিছু আমি ডিটেইলস এ বলে দিচ্ছি।প্রথমে আপনাকে সোয়াগবাগে সাইন আপ বা রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে।মনে রাখবেন,সোয়াগবাগের যে প্লে স্টোর এপ আছে সেখানে আপনাকে লগ ইন করা যাবে না।আপনাকে Swag Buck ওয়েবসাইটে কাজ করতে হবে।কেননা এপটি আমাদের ব্ল্যাকলিস্টেড করে দিবে।আর আপনাকে প্রথমে গুগলে গিয়ে SwagBucks SignUp লিখে সার্চ দিতে হবে।প্রথমে যে ওয়েবসাইটের লিংক আসবে সেখানে গেলেই সোয়াগবাগ সাইন আপের সাইটটি চলে আসবে।তারপর এখানে আপনাকে সাইন আপ করতে হবে প্রয়োজনীয় ইনফরমেশন দিয়ে।অবশ্যই জিমেইল ঠিকানা থাকা লাগবে।এটা জরুরী।সাইন আপ হয়ে গেলেই আসল কাজ শুরু।

সোয়াগ বাক একটি আন্তর্জাতিক মানের জরিপ পূরন করার সাইট। জরিপ পূরণ করা শিখে নিতে পারলে, অনলাইনে জরিপ পূরন করেই প্রচুর টাকা ইনকাম করা যায়। ২০০৫ সালে লঞ্চ হওয়া সোয়াগবাক একটি ক্যালিফোর্নিয়া ভিত্তিক কোম্পানি। যেটি অনলাইনে এড দেখার জন্য টাকা পে করে। অহ না, এটি ডলার পে করে। সোয়াগবাক অনলাইন দুনিয়ায় সবচেয়ে পুরাতন এবং জনপ্রিয় সাইট। এর যথেষ্ট খ্যাতি আছে। তারা আসলেই অর্থ আয় করার সুযোগ দেয়। যারা তাদের দেয়া ভিডিওগুলো ওয়াচ করে বা দেখে তারা আয় করে।

তারা বিভিন্ন ধরনের ভিডিও দেখার জন্য অর্থ প্রদান করে। পেমেন্ট দেয়। সেটা হতে পারে ইউটিউবে ভিডিও অথবা কোন ভিন্ন সাইটের ভিডিও। এমনকি কখনো কখনো কোনো বিশেষ সাইটে টিভি দেখার মাধ্যমে আয় করা সম্ভব। কিংবা তাদের নিজস্ব কোন ভিডিও যদিও ভিউ করেন, তাহলে সেখান থেকে আয় করার সুযোগ দিবে। যেহেতু এটি একটি জরিপ সাইট। সেহেতু এখানে জরিপ পূরণ করে, অনলাইনে এড দেখে, আরো নানা ভাবে আয় করা যায়। এমনকি অনলাইনে শপিং করলেও তারা বিভিন্ন ডিসকাউন্ট দেয়। ডিসকাউন্ট কুপন ইউজ করে আয় করা যায়।

সোয়াগবাক তার ব্যবহারকারীদেরকে মোট $275,000,000 ক্যাশ এবং গিফট কার্ড প্রদান করেছে।  ভিডিও দেখার পাশাপাশি, তারা যে সকল কাজের জন্য আপনাকে অনলাইনে অর্থ প্রদান করবেঃ

১) অনলাইন শপিং।

২) অনলাইন সার্ভে পূরণ।

৩) তাদের অফার গুলো পূরণ করা। 

৪) ওয়েব ব্রাউজিং। 

৫) ওয়েবসাইটে কোন কিছু সার্চ করা। 

৬) অনলাইনে কিংবা নিজের মোবাইলে বিভিন্ন। ধরনের গেম ইন্সটল করা।

৭) গেম খেলা।  

৮) তাদের মোবাইলে এপ ব্যবহার করা। প্রভৃতি।

এখানে কিছুসংখ্যক ভিডিও দেখেই  এস বি পয়েন্ট কামিয়ে নিতে পারেন। ভিডিও দেখার ক্যাটাগরী গুলো হলোঃ ফ্যাশন, ভ্রমণ,খাবার,স্বাস্থ্য,রান্না-বান্না।  রাজনীতি, খেলাধুলা নিয়ে সারভে করেও আয় করা যায়। এখানে প্রথমবার সাইন আপ করলেই ৫০ এস বি পয়েন্ট দেয়া হয়। এই এস বি পয়েন্টগুলা গিফট কার্ড হিসেবে রিডিম করে নিতে পারেন। গিফট কার্ড কিভাবে রিডিম করতে হয় তা ব্লগের একেবারে নিচে বলা আছে। সোয়াগ বাক প্রায় ১৩ বছর ধরে পে করে যাচ্ছে। সোয়াগবাকে ভালোমতো কাজ করার জন্য সবচেয়ে বেস্ট Tree VPN.

https://play.google.com/store/apps/details?id=com.prodege.swagbucksmobile&hl=bn&gl=US

Leave a Comment