সিপিএ (CPA) মার্কেটিং করে আয় করার অসাধারণ সাইট

অনলাইনে আয়ের সহজ মাধ্যম গুলোর একটি CPA মার্কেটিং ।এখানে কোন প্রোডাক্ট আপনাকে কোন সেল করতে হবে না। কোম্পানির জন্য লিড জেনারেট করার বিনিময়েই কমিশন পাওয়া যাবে। সহজ

কথায়, কোন কোম্পানির প্রোডাক্ট বিক্রির জন্য কাস্টমার নিয়ে আসাকে বুঝায়। যতজন কাস্টমার নিয়ে

আসা যাবে তার বিনিময়ে কোম্পানি কমিশন দিবে। সে কাস্টমার প্রোডাক্ট না কিনলেও কোম্পানি

কমিশন দিবে। আবার কিনলেও কমিশন দিবে।

CPA মার্কেটিং বলতে কি বুঝায়:

সিপিএ মার্কেটিং এর পূর্ন অর্থ হচ্ছে Cost Per Action। এফিলিয়েট মার্কেটিং এর গুরুত্বপূর্ন একটি পার্ট

হচ্ছে সিপিএ মার্কেটিং। এটা নতুন একটি এডভাটাইজিংমডেল এটা কাজের উপর নির্ভর করে পেমন্ট

দেওয়া হয়। সি. পি. এ. (CPA) মার্কেটিং হল এমন এক ধরনের এফিলিয়েট মার্কেটিং, যার মাধ্যমে ছোট

কিছু কাজ যেমন ইমেইল সাবমিট, জিপ কোড সাবমিট, ডাউনলোড, শেয়ার, কোন সাইটে রেজিষ্ট্রেশন

ইত্যাদি কাজের মাধ্যমে ইনকাম করা যায়। এজন্যই একে বলা হয়ে থাকে কস্ট পার এ্যাকশন তার মানে

যে কোন এ্যাকশন ফুলফিল হলেই কমিশন পাওয়া যায়। সিপিএ মার্কেটিং এর মাধ্যমে গড়ে প্রতিটা লিড

থেকে ১ ডলার থেকে ৪ ডলার আয় করা যায়। তাই বর্তমানে প্রচলিত এডভাটাইজিং পেমেন্ট মডেল

গুলির চেয়ে সিপিএ মার্কেটিং এর মাধ্যমে সহজে কয়েকগুন বেশি আয় করা সম্ভব। সিপিএ মার্কেটিং এর

ক্ষেত্রে অনেক বেশি গবেষণা ছাড়াই শুধুমাত্র নিয়ম মত কাজ করলে প্রথম থেকেই ভালো আয় করা যায়।

এটি অনলাইনে কাজের একটি গুরুত্বপূর্ন মাধ্যম।

অনলাইনে আয়ের সহজ মাধ্যম গুলোর একটি CPA মার্কেটিং ।এখানে কোন প্রোডাক্ট আপনাকে কোন

সেল করতে হবে না। কোম্পানির জন্য লিড জেনারেট করার বিনিময়েই কমিশন পাওয়া যাবে। সহজ

কথায়, কোন কোম্পানির প্রোডাক্ট বিক্রির জন্য কাস্টমার নিয়ে আসাকে বুঝায়। যতজন কাস্টমার নিয়ে

আসা যাবে তার বিনিময়ে কোম্পানি কমিশন দিবে। সে কাস্টমার প্রোডাক্ট না কিনলেও কোম্পানি

কমিশন দিবে। আবার কিনলেও কমিশন দিবে।

এ্যাকশন বলতে কি বুঝায়:

কোন কোম্পানীর কাছ থেকে কোনো অফার কেনা, গেম অথবা কোনকিছু ডাউনলোড করা, কোন

সাইটে সাইন আপ করা, অনলাইনে কোন গেইম এর জন্য অ্যাকাউন্ট খোলা, গেইম ডাউনলোড করা,

ইমেইল আইডি দেয়া, সাবস্ক্রাইব করা, এমনকি কোন সাইটে নিজের পোস্ট কোড দেয়াও এক একটা

এ্যাকশন।

CPA মার্কেটিং কাজ করে কিভাবে:

CPA মার্কেটিং এর জন্য কোন বিনিয়োগ করতে হবে না। শুধুমাত্র কোম্পানির মার্কেটিং করে লিড তৈরি

করার জন্য কমিশন দেওয়া হবে। যেমনঃ আপনার মাধ্যমে কেউ ফর্ম পূরণ করলে, ফর্ম পূরণের জন্য

আপনাকে কোম্পানি নির্দিষ্ট পরিমাণ কমিশন দিবে। অথবা আপনার মাধ্যমে কেউ আমার কোম্পানির

গেইম ডাউনলোড করলে কিংবা গেইম খেলার জন্য অ্যাকাউন্ট তৈরি করলে আপনি কমিশন পাবেন।

আর এ কারনই CPA মার্কেটিং অধিক জনপ্রিয় ও আয়ের সহজ মাধ্যম।

CPA মার্কেটিংয়ে কি অফার পাওয়া যায়:

ক.পে পার লিড– এই অফার গুলোতে মূলত থাকে সাইনআপ, ইমেইল সাবমিট ইত্যাদি ।

খ.পে পার ডাউনলোড– এই অফার গুলোতে মূলত থাকে সফটওয়ার, গেম ডাউনলোড ইত্যাদি ।

গ.পে পার সেল– এই ধরণের অফার গুলোতে মূলত যে প্রোডাক্ট থাকে ঐ প্রোডাক্ট সেল হইলে কমিশন

পাওয়া যায়। যেমন: হেল্থ, ইনসিওরেন্স ইত্যাদি।

সিপিএ মার্কেটিং এর কিছু আলোচিত বিষয় সর্ম্পকে সংক্ষিপ্ত আলোচনা :

1. CPA নেটওয়ার্ক এর মাধ্যমে প্রোডাক্ট বা সার্ভিসের বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। হতে পারে সে রিটেইলার,

অনলাইন রিটেইলার অথবা মার্চেন্ট।

2.পাবলিশার কমিশনের জন্য কোন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস প্রমোট করে। সহজ কথায় এক্ষত্রে আপনি, আমিই

সেই পাবলিশার বা মার্কেটার।

3. আপনাকে প্রতিটি লিডের জন্য পে করা হবে। ধরুণ, আপনি কোনো CPA অফার সিলেক্ট করে

আপনার সাইটে প্রচার করলেন, একজন ঐ লিংকের মাধ্যমে প্রবেশ করে এ্যাডভারটাইজার সাইটে গিয়ে

রেজিস্ট্রেশন করলো, তারমানে একটি লিড তৈরি হল। এই একটি লিডের জন্য আপনাকে কমিশন দেওয়া

হবে।

4.এটা হল সেই কমিশন বা নিদিষ্ট টাকা যা পাবলিশারকে পে করা হয়ে থাকে ।তার সাইটে থাকা

প্রোডাক্টের ব্যানার বা লিংকে প্রতিটা ক্লিকের জন্য।

5.নেটওয়ার্ক নির্বাচনের ক্ষেত্রে একটু ভেবে চিন্তে তারপর নির্বাচন করবেন। বর্তমানে সেরা সিপিএ

নেটওয়ার্ক গুলোর মধ্যে ৩ টি নিচে উল্লেখ করা হলঃ

ক.Adwork Media

খ.CPAGrip

গ.CPALead

6. CPA মার্কেটিং করতে আপনার অবশ্যই একটি ওয়েবসাইট থাকতে হবে। ফ্রি ডোমেইন ব্যবহার করে

একটি নিজস্ব ওয়েব সাইট বানানো যাবে। কিন্তু আমি বলবো আপনি একটি ওয়েব সাইট কিনে নিয়ে

তারপর কাজ করা ভাল হবে।

7. CPA মার্কেটিং করার জন্য পে-পার-ক্লিক সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে।

সিপিএ মার্কেটিং করে আয় করার কিছু বিশ্বস্ত নেটওয়ার্ক :

আপনাদের কাজের সুবিধার জন্য যে-সব সাইট এ গেলে আপনি সিপিএ নেটওয়ার্ক খুঁজে পাওয়া যাবেন

তার একটা তালিকা নিচে দেওয়া হলো আশা করি আপনাদের উপকারে আসবে। তাহলে দেখুন:-

AdworkMedia.Com

Peerfly.Com

CpaLead.Com

MaxBounty.Com

JvZoo.Com

CpaGrip.Com

ClickBooth.Com

Convert2Media.Com

উপরে দেওয়া এসব সাইটগুলোতে গেলে আপনি দুটো করে অপশন পাবেন একটি হলো অ্যাডভারটাইজার

অন্যটি হলো পাবলিশার এরপর পাবলিশার লেখাতে ক্লিক করলে সাইন আপ পেইজ আসবে, সেখানে

সঠিক ইনফরমেশনগুলো দিয়ে এ্যাকাউন্ট করতে হবে। যেহেতু আমরা অন্যের প্রোডাক্ট নিয়ে মার্কেটিং

করব, তাই আমরা পাবলিশার। আর যদি আমরা নিজের প্রোডাক্ট নিয়ে মার্কেটিং করতাম, তবে আমরা

অ্যাডভারটাইজার হতাম।

নিশ সিলেক্ট :

কাজ করার জন্য আপনাকে প্রথমেই নিশ সিলেক্ট করতে হবে, যে কোন নিশ নিয়ে আপনি কাজ করতে

পারবেন। নিশ মানে হচ্ছে বিষয়। কোন বিষয় নিয়ে মার্কেটিং করব সেটাই সিলেক্ট করতে হবে। আর এই

বিষয়কেই অনলাইনের ভাষায় নিশ বলে। এমন একটা নিশ সিলেক্ট করতে হবে যার চাহিদা বর্তমানে

আকাশচুম্বি। এই রকম কিছু নিশ আপনাদের সুবিধার জন্য তুলে ধরলাম।আপনি অনলাইনে নিচের

দেওয়া যেকোন বিষয়ের উপন নিশ নিতে পারেন। তাতে করে আপনার জন্য ভাল হবে। বিষয়গুলি হলো:-

1.ফুড বা খাদ্য সংক্রান্ত

2.হোম বেসড বিজনেস

3.তথ্য এবং প্রযুক্তি নিয়ে

4.মোবাইল অ্যাপস্ নিয়ে

5.হেলথ সংক্রান্ত

6.এডুকেশন বিষয়ে

7.মেক মানি বা অনলাইন আয়

8.ট্রাভেলিং

9.বিভিন্ন সফটওয়্যার

উপরে উল্লেখিত এই নিশগুলোর চাহিদা মার্কেটে কখনই শেষ হবে না। কারন হচ্ছে, যেমন টাকা একটা

নিশ আর টাকার চাহিদা মানুষের সব সময়ই থাকবে, তাই এটা একটা সুপার হট নিশ।

অফার কিভাবে প্রোমোট করা যায়:

অনেক অনেক নিশ রয়েছে পৃথীবিতে। যে কোনো একটা নিশ সিলেক্ট করে সেটা নিয়ে এনালাইসিস করে

কাজ শুরু করা যায়।

CPA মার্কেটিং এর বিভিন্ন অফার বিভিন্ন উপায়ে প্রমোট যায় তা হলো:

ক) বিভিন্ন সোসাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রমোট যায়

খ) ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে প্রমোট যায়

গ) ওয়েব সাইটে ব্যানার এড বসিয়ে করা যায়

ঘ) ল্যান্ডিং পেইজ তৈরি করে, তাছাড়া আরো অনেক উপায়ে করা যায়।

CPA মার্কেটিং করে আয় করার সাকসেস মেথড:

CPA মার্কেটিং এ অফার প্রোমোট করতে ফ্রি বা পেইড এই দুই মেথডই কাজ করা যায়। তবে ফ্রি মেথড

এ কাজ করলে রাতারাতি সাফল্য আসবে না, ধৈর্য ধরে কাজ চালিয়ে যেতে হবে। আর পেইড মেথড নিয়ে

কাজ করলে সাফল্য হওয়ার সম্ভবনা অনেক বেশি থাকে।

ফ্রি মার্কেটিং মেথড গুলো হলো :

১) ব্লগার ডট কম এ গিয়ে জিমেইল এ্যাকাউন্ট দিয়ে একটি ব্লগার এ্যকাউন্ট করে নেওয়া যাবে। এরপর

সেখানে আপনার নিশ রিলেটেড যে অফার বা প্রডাক্ট নিয়ে মার্কেটিং করবো তার উপর ব্লগ লিখে ফ্রি

মার্কেটিং করা যাবে।

২) অফার নিয়ে এস ই ও করে ফ্রি মার্কেটিং করা যাবে।

৩) কিছু ফেইসবুক আইডি বানিয়ে তাতে অফার রিলেটেড নাম দিয়ে গ্রূপ পেইজ বানাতে হবে। তারপর

সেখানে যে দেশের প্রডাক্ট নিয়ে কাজ করা হবে, সে দেশের মানুষের সাথে ফেসবুকে ফ্রেন্ড রিকুইয়েস্ট

দিতে হবে। তাদের সাথে কথা বলার চেষ্টা করতে হবে, তাদেরকে গ্রূপ পেইজে ইনভাইট করতে হবে। কারা

আমাদের অফার এর উপর আগ্রহী তা জানার জন্য যা যা করার প্রয়োজন, তাই করতে হবে।

৪) ফোরাম করেও মার্কেটিং করা যায়। ফোরাম হচ্ছে কমেন্ট এ আমরা যে-সব আলোচনা করি সে-রকম।

৫) ইউটিউব এ ভিডিও আপলোডের মাধ্যমেও ভিডিও মার্কেটিং করা যায়।

৬) ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আমরা ট্রাফিক জেনারেট করতে পারি।এবং সেখান থেকে আয় করতে পারি।

পেইড মার্কেটিং মেথডঃ

উপরেন কাজ গুলো আমরা করবো তবে সেসব কাজের সাথে আমরা এক্সট্রা যোগ করবো ইনভেস্ট যাতে

ইনকাম সম্ভবনা বেড়ে যায় এবং খুব তাড়াতাড়ি আমরা ফিডবেক পাই।

১.ফেইসবুকে প্রোডাক এর বিভিন্ন দিক তুলে ধরে তা পোস্ট বুস্ট বা প্রমোট করতে পারি। আর আমাদের

সেই পোস্ট হবে অফার নিয়ে। যাতে করে ট্রাফিক আমাদের পোস্ট পড়ে এবং ফাস্ট পেইজ সাবমিট করে

বা তাদের মেইল সাবমিট করে। সেজন্য ফেইসবুককে আমাদের পে করতে হবে, আমরা চাইলে সর্বনিন্ম ১

ডলার এর ও বুস্ট করাতে পারি।

২.নিশ রিলেটেড কোন ওয়েবসাইট এ আমাদের অফার নিয়ে এডভাটাইজ দেওয়া যেতে পারে। আর এই

এ্যাডের মাধ্যমেও ট্রাফিক জেনারেট হবে।

৩. ইউটিউব এ ভিডিও মার্কেটিং করেও লিড জেনারেট করা যায়। সেক্ষেত্রে ইউটিউব এর ভিডিওর এ্যাড

করাতে হবে যার জন্য ইনভেস্ট করা লাগবে।

সুতরাং এখন বুঝতে পারছেন CPA মার্কেটিং এ কিভাবে কাজ শুরু করে আয় করবেন। তাহলে সময় নষ্ট

না করে আজ থেকে কাজ শুরু করুন। বন্ধুরা অবশ্যই ধৈর্য্য নিয়ে কাজ করবেন।তাহলে আপনি আপনার

সাফল্য পাবেন। আজ এ পযর্ন্ত ভাল লাগলে আপনার বন্ধুদের কে শেয়ার করতে ভূলবেন না।

ভাল থাকবেন।।

Leave a Comment